1. admin@crimenews24.net : cn24 :
  2. zpsakib@gmail.com : cnews24 :
শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪, ১০:২৯ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
শাহজাদপুরে মদের দোকান বন্ধের দাবিতে মুসল্লিদের বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন  সড়কের শাহজাদার বেতন ৩৪ হাজার দিয়েই কি গড়েছেন সম্পদের পাহাড়? দিনাজপুর-বিরামপুর -ঘোড়াঘাট সড়কের নবাবগঞ্জের মতিহারা নামক স্থানে রাস্তায় সৃষ্ট গর্তে প্রতিনিয়ত দুর্ঘটনা ঘটছে নালিতাবাড়ীতে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে আওয়ামী লীগ নেতা আটক রাণীশংকৈলে  আইনশৃঙ্খলা কমিটির সভা অনুষ্ঠিত মৌলভীবাজারে বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস উদযাপন উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত  বাঁশখালীতে বসতভিটার বিরোধে মারধর হত্যার হুমকি, গ্রেপ্তার ১ গাজীপুর কোনাবাড়ী সকালে পাঁচ  শতাধিক অবৈধ গ্যাস বিছিন্ন বিকালে পুনঃ সংযোগ  গুলশান-বনানীতে স্পার নামে শত-শত নারী দিয়ে দেহ মাদক ব্যবসা মুখোমুখি পুলিশ-সাংবাদিক

রাজশাহীতে হত্যা মামলায় দুজনের যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ড ও দুজন খালাস

কাজী এনায়েত, রাজশাহী:
  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ১২ মার্চ, ২০২৪
  • ৩৭ বার নিউজটি পড়া হয়েছে

 

রাজশাহীর আলোচিত কিশোর মো. সনি (১৬) হত্যা মামলায় দুই তরুণ-তরুণীকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। হত্যার আগে সনিকে অপহরণের দায়ে আসামিদের আরও ১০ বছর করে সশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

সোমবার দুপুরে রাজশাহীর দ্রুতবিচার ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. মহিদুজ্জামান এ রায় ঘোষণা করেন।

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন, রাজশাহী মহানগরীর হেতেমখাঁ সাহাজিপাড়া মহল্লার মো. মামুনের ছেলে মো. মঈন ওরফে আন্নাফ (২০) এবং মঈনের বান্ধবী হাবিবা কুমকুম সাবা ওরফে ঐশী (১৯)।

মামলায় মঈনের মা এবং মামাও আসামি ছিলেন। অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় তাদের বেকসুর খালাস দেওয়া হয়েছে। মঈনের মা বিথি খাতুন রাজশাহী মহানগর মহিলা দলের ক্রীড়াবিষয়ক সম্পাদক।

নিহত সনি জেলা মোটর শ্রমিক ইউনিয়নের সহ-সভাপতি রফিকুল ইসলাম পাখির ছেলে। ২০২২ সালের ৩ জুলাই তার জন্মদিন ছিল। সেদিন রাতে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল এলাকা থেকে তাকে হেতেমখাঁ সবজিপাড়া এলাকায় তুলে নিয়ে যাওয়া হয়। এরপর কুপিয়ে হত্যা করা হয় তাকে। এ নিয়ে নয়জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন তার বাবা।

এ মামলার এজাহারে ঐশীর নাম ছিল না। ঘটনার পর মহিলা দলের নেত্রী বিথি তার ছেলে মঈন ও মঈনের বান্ধবী ঐশীকে নিয়ে পালিয়ে যান। ৮ জুলাই রাতে কুড়িগ্রামের প্রতাপ গ্রাম থেকে এই তিনজনকে গ্রেফতার করে র‌্যাব। পরবর্তীতে পুলিশ নয়জনের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করে। এদের মধ্যে পাঁচজন অপ্রাপ্তবয়স্ক।

আদালতের রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী এন্তাজুল হক বাবু জানান, শিশু আইনে অপ্রাপ্তবয়স্ক পাঁচজনের বিচার চলছে নারী ও শিশু আদালতে। আর প্রাপ্তবয়স্ক চারজনের বিচারকার্য শেষ হলো দ্রুতবিচার ট্রাইব্যুনালে। আদালত কুপিয়ে হত্যার দায়ে প্রধান আসামি মঈন ও তার বান্ধবী ঐশীকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন। এছাড়া অপহরণের দায়ে আরও ১০ বছর করে কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে তাদের। অন্য দুই আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগ ছিল তারা হত্যার পরিকল্পনার সঙ্গে যুক্ত। এ অভিযোগ প্রমাণিত হয়নি বিবেচনায় আদালত তাদের খালাস দিয়েছেন। রায় ঘোষণার সময় চার আসামির সবাই হাজির ছিলেন। সাজাপ্রাপ্ত দুইজনকে রাজশাহী কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

আইনজীবী এন্তাজুল হক বাবু আরও জানান, আদালত রায়ের পর্যবেক্ষণে বলেছেন সাজাপ্রাপ্ত দুই আসামি মৃত্যুদণ্ড পাওয়ার মতো অপরাধ করেছেন। কিন্তু তাদের বয়স কম। সে বিবেচনায় তাদের মৃত্যুদণ্ড না দিয়ে কারাদণ্ড দেওয়া হলো।

এ নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করেন রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী এন্তাজুল হক বাবু। তিনি বলেন, হত্যাকাণ্ডের শিকার সনিও অপ্রাপ্তবয়স্ক ছিল। তাকে নির্মমভাবে কুপিয়ে হত্যা করা হয়। আর সাজাপ্রাপ্ত দুজনের বয়স ১৮ বছরের বেশি। তাই তাদের সর্বোচ্চ সাজা হলে আমি খুশি হতাম।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর ....
© All rights reserved © 2022 crimenews24.net
Design & Developed By : Anamul Rasel