1. admin@crimenews24.net : cn24 :
  2. zpsakib@gmail.com : cnews24 :
শুক্রবার, ২০ মে ২০২২, ০৭:৪৯ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :

দামুড়হুদায় মিথ্যা সংবাদ প্রকাশের প্রতিবাদে সংবাদ সন্মেলন

দামুড়হুদা প্রতিনিধি
  • আপডেট টাইম : শুক্রবার, ৮ এপ্রিল, ২০২২
  • ৪৫ বার নিউজটি পড়া হয়েছে

মিথ্যা সংবাদ প্রকাশের প্রতিবাদে দামুড়হুদা প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সন্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে।সংবাদ সন্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন দামুড়হুদা উপজেলা সাব- রেজিস্ট্রার এম নাফিয বিন যামান।

লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, আমি যোগদানের পর থেকে দলিল লেখক সমিতির সভাপতি সিরাজুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম বিভিন্ন সময়ে অবৈধ কাগজ পত্র দিয়ে দলিল করিয়ে দেবার জন্য চাপ দেন। সম্প্রতি সময়ে সমিতির দলিল লেখক রাজিবুল ইসলাম বকুল জাল কাগজ দিয়ে দলিল সম্পন্ন করতে গেলে তা আমার নজরে পড়েন।এ অপরাধে রাজিবুল ইসলাম বকুল কারাভোগ করেছেন।এ ঘটনায় তার অপরাধের বিরুদ্ধে কোন ব্যাবস্থা না  নেওয়ার জন্যও সেসময়ে সমিতির সভাপতি সিরাজুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম অনেক চাপ ও দুর্বব্যবহার করেন।উল্লেখিত ঘটনায় তাদের অন্যায় মতামতের সাথে একমত না হওয়ায় তারা সাব – রেজিস্ট্রার অফিস ও আমাকে অপদস্ত করতে এ চক্রান্ত করেন। দলিল লেখক সমিতির সভাপতি সিরাজুল ইসলাম পূর্বেও জাল কাগজ প্রত্র দিয়ে দলিল দাখিলের জন্য পূর্ববর্তী সাব- রেজিস্ট্রার অফিসারের দ্বারা সাসপেন্সও হন।সমিতির নামে দীর্ঘদিন যাবত এ সংক্রান্ত অপকর্মের সাথে যুক্ত। এরই জেরে মিথ্যা সংবাদ প্রকাশ করেন। এসময় সংবাদ সন্মেলনে তিনি আরো বলেন,জাতীয় পরিচয় পত্রের ফটোকপির জন্য অর্থ আদায় করা হয় যা মিথ্যা,কারো মূল আইডি সাথে না আনলে নির্বাচন অফিস থেকে যাচাইয়ের মাধ্যমে পরিচয় নিশ্চিত করা হয়,কোন অর্থ বিনিময় এখানে হয়না। এছাড়াও দলিল প্রতি ফিসের কথা বলা হয়েছে যা অমূলক, মুলতঃ বিভিন্ন দলিলে সরকারি ফিস পে-অর্ডার এবং কিছু ফিস নগদে আদায় হয় যাকে ভূল তথ্য দিয়ে প্রকাশ করা হয়। এছাড়া সাব- রেজিস্ট্রারের ক্ষমতা নিয়ে মিথ্যা বক্তব্য দিয়েছেন।অফিসের নথি পত্র থেকে জানা যাবে বিগত কয়েক মাস যাবত দলিল হয়েছে তা সিংহভাগই দুপুর ২ টার আগে করা হয়েছে।দলিল লেখক সিন্ডিকেটের মাধ্যমে অতিরিক্ত অর্থ আদায়ের বিষয়টি মিথ্যা ও বানওয়াট মুলতঃদলিল লেখক সমিতির নামে প্রতি লাখে অতিরিক্ত অর্থ আদায় হয়,এছাড়াও অফিসের নামেও তারা জনগণের কাছে অতিরিক্ত অর্থ আদায় করে থাকেন।বাস্তবে কোবালা দলিলে লাখে খরচ ৬৫০০ এবং পৌরসভায় ৭৫০০ টাকা এবং দলিল লেখকের সন্মানী বা লেখনির খরচ দলিলের পাতা প্রতি ৪০ টাকা, সে অনুযায়ী প্রতি দলিলে ৪০০ থেকে ১০০০ টাকার বেশি ফি হওয়ার সুযোগ নেই। মুলত এ সংক্রান্ত বিষয়ে সমিতিকে জানালেই তারা ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে এবং এই ষড়যন্ত্রমুলক সংবাদ প্রকাশ করেন।আমি প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদে সংবাদ  সন্মেলন করছি।সত্য ঘটনা এবং সত্য প্রকাশে আপনাদের সহযোগিতা কামনা করছি।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর ....
© All rights reserved © 2022 crimenews24.net
Design & Developed By : Anamul Rasel